বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিলেন শিক্ষার্থীরা, অন্ধকারে শাবি উপাচার্য

Published: 23 January 2022, 2:35 PM

পোস্ট ডেস্ক :


উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে ভিসির বাসভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা। রবিবার সন্ধ্যা ৭টা ২০মিনিটের দিকে ভিসির বাস ভবনের সামনে বিদ্যুৎতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন তারা।

এরপর থেকে অন্ধকারে রয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন। বাস ভবন এলাকায় কোনো প্রকার আলো দেখা যায়নি।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী সাদিয়া আফরিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, যতক্ষণ শিক্ষার্থীরা অনশনে থাকবে ততক্ষণ উপাচার্য ভবন বিদুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে।

এর আগে, উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে রবিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা ঘোষণা দেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ছাড়া উপাচার্যের বাসভবনের ভেতরে আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করার পর শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি যেভাবে এগোচ্ছে, এতে আমাদের বাধ্য করা হচ্ছে আরো কঠোর কর্মসূচির দিকে যেতে।

তাঁরা বলেন, ভিসির বাসভবনে কেবল পুলিশ ছাড়া কেউ ঢুকতে পারবে না। ভবিষ্যতে তাঁরা উপাচার্যের বাসভবনের জরুরি পরিষেবা বন্ধ করতে বাধ্য হবেন বলে জানান। তবে বর্তমানে বাসভবনের জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে।

এ ছাড়া আমরণ অনশন কর্মসূচির ১০০ ঘণ্টা পূর্ন হচ্ছে আজ সন্ধ্যায়। এ কারণে শিক্ষার্থীরা ১০০ ঘণ্টা পূর্ণ উপলক্ষে ক্যাম্পাসে প্রতিবাদী মিছিল করার ঘোষণা দিয়েছেন।

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩ জানুয়ারি রাত থেকে শুরু হওয়া প্রভোস্টবিরোধী আন্দোলনে ১৬ জানুয়ারি পুলিশের হামলা চালিয়ে ৩০ শিক্ষার্থীকে আহত করলে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবি ওঠে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ এবং শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আমরণ অনশনসহ আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন শিক্ষার্থীরা।

গতকাল শনিবার গণ-অনশনের ঘোষণা দিয়ে সেখানে আরো শিক্ষার্থী যোগ দেন। অনশনরত অনেক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁদের মধ্যে কয়েকজন চিকিৎসা নিয়ে ফিরে আবারও অনশনের যোগ দেন।