টমি মিয়াস কাচ্চি বিরিয়ানি চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশ

Published: 26 January 2022, 7:29 PM

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

রন্ধন একটি শিল্প। রন্ধনশিল্পকে নতুনত্বের ছোঁয়া দিয়ে বিশ্বব্যাপি এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার অন্যতম অগ্রনায়ক জনপ্রিয় আন্তর্জাতিক রন্ধশিল্পী টমি মিয়া। সম্প্রতি তিনি সারা বাংলাদেশ ব্যাপি ” কাচ্চি বিরিয়ানি চ্যালেঞ্জ” নামক একটি রন্ধন প্রতিযোগিতার আয়োজন করার উদ্যোগ নিয়েছেন। গত ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং তারিখ এক ভার্চুয়ালে আলোচনা ও প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। সায়ের মাহবুব এর সঞ্চালনায় উক্ত আলোচনা ও প্রেস কনফারেন্স লন্ডন থেকে অংশগ্রহন করেন আন্তর্জাতিক রন্ধনশিল্পী মিয়া MBE, FRSA বাংলাদেশ থেকে টমি মিয়া’স হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাজুল ইসলাম টমি মিয়ার মার্কেটিং উপদেষ্টা ও পরামর্শক এস.এম. আলী জাকের সজীব : কলকাতা থেকে টমি মিয়ার ডিজিটাল মার্কেটিং পার্টনার শুভংকর এবং বাংলাদেশের সকল বিশিষ্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধিবৃন্দ।
ভার্চুয়াল আলোচনা ও প্রেস কনফারেন্সের এর মাধ্যমে রন্ধন প্রতিযোগিতা “টমি মিয়ান্স কাচ্চি বিরিয়ানি চ্যালেঞ্জ এর সার্বিক বিষয়াদি উপস্থাপন করা হয় এবং এই বছরের শেষের দিকে আয়োজনের পরিকল্পনাধীন “টমি মিয়াস ইন্টারন্যাশনাল শেফ অফ দ্যা ইয়ার’ প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি বিষয়ক আলোচনা করা হয়।
আগ্রহী প্রতিযোগিরা রন্ধন প্রতিযোগিতা “টমি মিয়াস কাচ্চি বিরিয়ানি চ্যালেঞ্জ” এ অংশগ্রহন করতে নাম, মোবাইল নম্বর, ঠিকানাসহ প্রতিযোগির নিজের কাচ্চি বা বিরিয়ানি রান্নার ২ মিনিট থেকে ৫ মিনিট সময়সীমার ভিডিও, রান্না শেষে খাবারের একাধিক ছবি এবং রেসিপি contest.tmkbc@gmail.com এ ইমেইলের মাধ্যমে আগামী ২০শে ফেব্রুয়ারী, ২০২২ ইং তারিখের মধ্যে পাঠাতে হবে। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে থেকে বাছাইকৃত ১০ জনকে নিয়ে আগামী ২৮শে ফেব্রুয়ারী, ২০২২ ইং তারিখ ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ড। প্রতিযোগিতায় প্রধান বিচারক হিসাবে উপস্থিত থাকবেন আন্তর্জাতিক রদ্ধনশিল্পী টমি মিয়া। প্রতিযোগিতায় প্রথম বিজয়ীকে ৩০,০০০ টাকা, দ্বিতীয় বিজয়ীকে ২০,০০০ টাকা ও তৃতীয় বিজয়ীকে ১০,০০০ টাকা দিয়ে পুরষ্কৃত করা হবে। পুরষ্কারের পাশাপাশি বিজয়ীদের জন্য থাকবে গিফট হ্যাম্পার। এছাড়াও প্রতিযোগিতার প্রথম বিজয়ী সুযোগ পাবেন এই বছরের শেষের দিকে আয়োজিত “টমি মিয়ান্স ইন্টারন্যাশনাল শেফ অফ দ্যা ইয়ার” প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করার। প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ড বাংলাদেশের বেসরকারী একটি টেলিভিশন চ্যানেলে সম্প্রচার করা হবে।
করোনা সংক্রান্ত সরকারী সকল বিধি নিষেধ মেনে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিযোগিতার সার্বিক ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবে টমি মিয়াস হসপিটালিটি ম্যানেজে