ভারত থেকে ৩০ হাজার শিক্ষার্থী নেবে ফ্রান্স

Published: 27 January 2024

পোস্ট ডেস্ক :


ভারতজুড়ে পালিত হলো দেশটির ৭৫তম প্রজাতন্ত্র দিবস। দেশটির প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মু গতকাল শুক্রবার দিল্লিতে কার্তব্য পথ থেকে ৭৫তম প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনে নেতৃত্ব দেন। কুচকাওয়াজের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ।

৭৫ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রতিবারের মতো চলতি বছরেও নজর কেড়েছে ট্যাবলো। চলতি বছরে এই কুচকাওয়াজে দেশের বিভিন্ন সাফল্যের খতিয়ানকে ট্যাবলোর মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। সেখানে বহু রাজ্য থেকেও নানান ট্যাবলো উঠে আসে। এবারের ট্যাবলোতে চন্দ্রাভিযান ও জি-২০ সম্মেলন আয়োজনে ভারতের সফলতার বিষয়টি গুরুত্ব পায়। প্রজাতন্ত্র দিবসে ভারতে এসেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। ফ্রান্সে ভারতীয় ছাত্রদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিরাট ঘোষণা।

গতকাল সকালে এক্স হ্যান্ডেলে ম্যাক্রঁ লিখেছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ হাজার ভারতীয় শিক্ষার্থী ফ্রান্সে পড়াশোনার সুযোগ পাবেন। একই পোস্টে ম্যাক্রঁ লিখেছেন, ফ্রান্স এই লক্ষ্যপূরণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। প্রজাতন্ত্র দিবসে ম্যাক্রঁর এই উপহারে স্বাভাবিকভাবেই খুশি ভারতীয় ছাত্ররা।

২৬ জানুয়ারি ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস। ১৯৫০ সালে এই দিনেই ভারতের সংবিধান গৃহীত হয়েছিল। প্রতি বছরই এই দিনে রাজধানী দিল্লির রাজপথে কুচকাওয়াজ হয়। সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয় পৃথিবীর কোনো দেশের রাষ্ট্রপ্রধানকে। এবার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ম্যাক্রঁকে। দিল্লি নয়, প্যারিস থেকে ম্যাক্রঁ প্রথম এসে নামেন রাজস্থানে।

জয়পুরে আমের দুর্গ ঘুরে দেখেন তিনি। দেখেছেন যন্তর মন্তরও। দিল্লির নয়, জয়পুরের। রাজা মান সিং যে মাণমন্দির প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এরপর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন তিনি। একাধিক বিষয় নিয়ে সেখানে আলোচনা হয়েছে। এরপরেই শুক্রবার সকালে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার আগে এই ঘোষণা করেন ম্যাক্রঁ।

ম্যাক্রঁ জানিয়েছেন, আগে ফ্রান্সে উচ্চশিক্ষার জন্য গেলে ফরাসি ভাষা শিখতে হতো। কিন্তু এখন আর তা বাধ্যতামূলক নয়। ফরাসি না জেনেও ফ্রান্সে পড়তে যাওয়া যাবে। উচ্চশিক্ষায় ভারত এবং ফ্রান্স একসঙ্গে আরো অনেক কাজ করবে বলেও নিজের এক্স হ্যান্ডেলে জানিয়েছেন ম্যাক্রঁ। প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পর ভারতের প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গে ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে রাষ্ট্রপতি ভবনে যান ম্যাক্রঁ। কুচকাওয়াজ চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী মোদির কাছে বেশ কিছু বিষয়ে জানতেও চান তিনি। বছরকয়েক আগে ফ্রান্সের থেকে রাফাল যুদ্ধবিমান নিয়েছে ভারত। এদিনের কুচকাওয়াজে সেই বিমানও অংশ নিয়েছিল। যা দেখে হাততালি দেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।