সিলেটে সাংবাদিক মনজুর উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবীতে রাস্তায় সাংবাদিকরা

Published: 26 May 2022, 3:45 PM

সিলেট অফিস :


ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (ইমজা) সিলেট- এর সভাপতি ও চ্যানেল এস এর প্রধান প্রতিবেদক মঈন উদ্দিন মনজুর উপর হামলার প্রতিবাদ ও জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন সিলেটের সাংবাদিক নেতারা।

দুপুরে সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গনে আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানান।

সিলেটে কর্মরত টেলিভিশন সাংবাদিকদের সংগঠন ইমজা মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। এতে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব, সিলেট প্রেসক্লাব, ইমজা, বিভাগীয় ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, ক্রীড়া লেখক সমিতি, এমসি কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতৃবৃন্দসহ শতাধিক সাংবাদিক ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ইমজার সহ-সভাপতি ইকবাল মুন্সির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মারুফ আহমেদের পরিচালনায় মানববন্ধনে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, মনজু’র উপর হামলা স্বাধীন সাংবাদিকতার উপর হামলা। হামলার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে শাস্তি নিশ্চিতের পাশাপাশি গণমাধ্যম কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান তারা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ইকবাল সিদ্দিকী, সুজন সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবদুল মালিক জাকা, ইমজার সাবেক সভাপতি কামকামুর রাজ্জাক রুনু, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক এম এ হান্নান, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আব্দুর রশিদ রেনু, জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, দৈনিক খবরপত্রের ব্যুারো প্রধান এম এ মতিন, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ আশরাফুল আলম নাসির, সাবেক সভাপতি আবদুল বাতিন ফয়সল, দৈনিক দুনিয়া আখেরাতের বার্তা সম্পাদক আমিরুল ইসলাম এহিয়া, জেলা প্রেসক্লাবের সহ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ রাসেল, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক কাওসার চৌধুরী, সিলেট ক্রীড়া লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহবাব মুস্তফা খান, আনন্দবাজার‘র সিলেট প্রতিনিধি রেজাউল হক ডালিম, দৈনিক জৈন্তাবার্তার বার্তা সম্পাদক খালেদ আহমদ, ভোরের কাগজের স্টাফ রিপোর্টার জাহিদুল ইসলাম, ইমজার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক টুনু তালুকদার, দৈনিক জালালাবাদের স্টাফ রিপোর্টার মারুফ হাসান, স্টাফ ফটোগ্রাফার হুমায়ুন কবির লিটন, প্রথম আলো প্রতিনিধি মানাউবী সিংহ, মাইটিভির সিলেট প্রতিনিধি মৃণাল কান্তি দাস, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির রিপোর্টার মাধব কর্মকার, শ্যামল সিলেটের মো. আজমল আলী, দেশ টিভির স্টাফ রিপোর্টার হোসাইন আহমদ সুজাদ, শ্যামল সিলেটের ফটোগ্রাফার রেজা রুবেল, সমকালের পর্তুগাল প্রতিনিধি শাহ মোহাম্মদ তানভীর, ইমজার সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক হাসান সিকদার সেলিম, এমসি কলেজ রিপোর্টার ইউনিটির আজহার উদ্দিন, সিলেট ভিউ‘র জুনেদ আহমদ চৌধুরী, ঢাকাপোস্টের মাসুদ আহমদ রনি, মো. আবদুল মুকিত তুহিন, দৈনিক ভোরের পাতার জাবেদ এমরান, আমাদের সময়ের একরাম হোসেন, আজকের দর্পণের আমজাদ হোসেন, মকসুদ হোসেন, সিলেট প্রতিদিন ২৪ ডটকমের বার্তা সম্পাদক এনামুল কবীর, দৈনিক জাতীয় অর্থনীতির সিলেট প্রতিনিধি মোকলেছুর রহমান, জুনেদ আবদুল্লাহ গুলজার, চ্যানেল এস‘র ছাতক প্রতিনিধি মোহাম্মদ রাজ উদ্দিন রাজ, সূর্যাদয় যুব সংঘের সভাপতি মো. হাসান তালুকদার সোহেল, সাধারণ সম্পাদক এ কে কামাল হোসেন, সময় টিভির রিপোর্টার শাহ শরীফ উদ্দিন, আনন্দ টিভির বিপলু আহমদ, ফুজায়েল আহমদ, এম এ মুকিত, নয়াসড়ক ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মতিউর রহমান শিমুল, সহ সভাপতি নাজিম উদ্দিন, সদাগরটুলা সমাজ কল্যাণ সংস্থার বাবর উদ্দিন, মিনহাজুর রহমান রাহি, দৈনিক বাংলাদেশ সমাচারের সিলেট ব্যুারো প্রধান মোশারফ হোসেন খান, সালাহ উদ্দিন মোহাম্মদ, ঢাকা টাইমসের শাদমান শাবাব, সাগর রায়, এসএনপিস্পোর্টস ২৪ ডটকমের আশিক উদ্দিন, দৈনিক একাত্তরের কথার জয়ন্ত কুমার দাস, একাত্তরের কথার মো. আশরাফ উল্লাহ ইমন, দৈনিক ভোরের আকাশের কামরুল ইসলাম মাহি, জাকারিয়া হোসেন, আরিফ আহমদ, শিপন চন্দ জয়, মো. ফারুক মিয়া, জনি কান্ত প্রমুখ।

গত ২৩ মে সোমবার নগরীর চৌহাট্টায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সংবাদ সংগ্রহের সময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা লাঠি ও রড নিয়ে মনজুর উপর হামলা চালায়। পরে আহত অবস্থায় তাকে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায়, ২৫ মে নগরীর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন আহত সাংবাদিক মঈন উদ্দিন মনজু।