এবারও বিশেষ ব্যবস্থায় হজ সুযোগ থাকছে না বাংলাদেশি হজযাত্রীর

Published: 10 May 2021, 5:27 PM

পোস্ট ডেস্ক :


করোনা মহামারি সংক্রমণের দরুন চলতি বছর ১৪৪২ হিজরীতে বিশেষ ব্যবস্থায় পবিত্র হজ পালিত হবে। রোববার সউদীর রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে হজ মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে। তবে, কী পদ্ধতিতে এবং কোন কোন শর্ত মেনে হজের আয়োজনে অংশ নেয়া যাবে; সে বিষয়ে পরে জানিয়ে দেয়া হবে বলে ওই ঘোষণায় জানানো হয়েছে। এর আগে, ২০২০ সালেও বৈশ্বিক মহামারির কারণে সীমিত পরিসরে কেবলমাত্র সউদী আরবের অধিবাসীদের প্রবেশাধিকার রেখে হজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়।
এ ব্যাপারে ওয়াকিবহাল দুই কর্মকর্তার বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ ফের বাড়তে থাকায় এবং ভাইরাসটির দ্রুত সংক্রমণক্ষম নতুন নতুন ধরন শনাক্তের কারণে দেশে এ মহামারির বিস্তার রোধে এ বছরও বিদেশ থেকে কাউকে হজে যাওয়ার অনুমিত না দেয়ার বিষয়টি সউদী প্রশাসন বিবেচনা করছে। ফলে এবার বাংলাদেশ থেকে কোনো হজযাত্রীর হজে যাওয়ার সুযোগ থাকছে না। সরকারি ও বেসরকারি প্রায় ৬১ হাজার নিবন্ধিত হজযাত্রী রয়েছেন। করোনা মহামারির কারণে এসব হজযাত্রী দু’বছর ধরে হজে যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।
এদিকে, মুসলিমদের সামর্থসাপেক্ষে অবশ্যপালনীয় ধর্মীয় আচারের অন্যতম হজ। করোনা মহামারি বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ার আগে প্রতিবছর ২৫ লাখের বেশি মানুষ হজের আয়োজনে অংশ নিতেন। এছাড়াও ওমরাহ পালন করতে নানান দেশ থেকে সারা বছরই হাজার হাজার মুসলিম সউদী আরবে গিয়ে থাকেন। হজ থেকে সউদী আরব প্রতিবছর প্রায় এক হাজার দুইশ’ কোটি মার্কিন ডলার আয় করে।
প্রসঙ্গত, সাত মাস বন্ধ থাকার পর ২০২০ সালের অক্টোবরে ওমারাহ পালনের জন্য সউদী আরবের মসজিদুল হারাম খুলে দেয়া হয়েছিল। কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন বাজারে আসার পর গত মার্চে সউদী আরব সরকার বলেছিল, যারা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়েছেন কেবলমাত্র তাদেরকেই হজের অনুমতি দেয়া হবে।
অন্যদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার নতুন নতুন ধরন শনাক্ত হওয়া এবং সেগুলো মোকাবিলায় বর্তমানে বাজারে থাকা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে সউদী আরবের কর্তৃপক্ষকে। অচিরেই হজ পালনের বিস্তারিত সিদ্ধাস্ত তারা জানিয়ে দেবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •