অবশেষে পদত্যাগ করছেন বরিস জনসন

Published: 7 July 2022, 11:37 AM

পোস্ট ডেস্ক :


অবশেষে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন বরিস জনসন। ১৯২২ কমিটির চেয়ারম্যান স্যার গ্রাহাম ব্রাডির সঙ্গে এক বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। আজই তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে। এ খবর দিয়েছে স্কাই নিউজ।

তার কার্যালয়ের এক সূত্রের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, ১৯২২ কমিটির চেয়ারম্যান গ্রাহাম বাডির সঙ্গে বৈঠকে তিনি পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে সম্মত হয়েছেন। আগামি অক্টোবর মাসের পার্টি কনফারেন্সে নতুন টরি নেতাকে তার পদে নিয়োগ দেয়া হবে। আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, আজ এ নিয়ে একটি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেবেন জনসন।

এদিকে বিবিসি জানিয়েছে, কনজারভেটিভ দলের প্রধান হিসেবে পদত্যাগ করবেন জনসন। তবে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের আগ পর্যন্ত তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করে যাবেন। আগামি অক্টোবর মাসে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হবে।

এদিকে তার পদত্যাগের খবর শুনে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা কেইর স্টার্মার। তিনি একে সুসংবাদ বলে আখ্যায়িত করেন। বলেন, জনসন সবসময়ই বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার অযোগ্য ছিলেন।

তিনি মিথ্যা বলেছেন, স্ক্যান্ডাল ঘটিয়েছেন এবং প্রতারণা করেছেন। যারা তাকে সাহায্য করেছেন তাদের লজ্জিত হওয়া উচিৎ। স্টার্মার আরও বলেন, তারা ১২ বছর ধরে ক্ষমতায় থেকে যে ক্ষতি করেছেন তা অনেক গভীর। ১২ বছর ধরে অর্থনীতি থমকে আছে। ১২ বছর ধরে সরকারি সেবা কমছে। ১২ বছর ধরে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি চলছে। কিন্তু যথেষ্ট হয়েছে। কনজারভেটিভ দলের মধ্যে পরিবর্তন দিয়ে কিছু হবে না। আমাদের প্রয়োজন সরকার পরিবর্তন। বৃটেনকে আবার নতুন করে শুরু করতে হবে।