ছেলেদের ম্যাচে রেফারি হলেন নারী পুলিশ কর্মকর্তা

Published: 15 May 2022, 9:28 AM

পোস্ট ডেস্ক :

দেরিতে হলেও আরব বসন্তের ছোঁয়া লাগল এবার রেফারিংয়ে। আরব বিশ্বের প্রথম নারী রেফারি হিসাবে ছেলেদের কোনো জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ পরিচালনা করেছেন মরক্কোর বুশরা কারবৌবি।

ম্যাচে তার সহকারী ছিলেন আরেক নারী রেফারি ফাতিমা জারমৌমি।

মরক্কোর জাতীয় নকআউট ফুটবল টুর্নামেন্ট থ্রোন কাপের ফাইনালে শনিবার মুখোমুখি হয়েছিল এএসফার ও মোঘরের তেতুয়ান। এই ম্যাচ পরিচালনা করেই ইতিহাস গড়েন ৩৪ বছর বয়সি বুশরা।

থ্রোন কাপ মরক্কোর বার্ষিক জাতীয় নকআউট ফুটবল টুর্নামেন্ট। এর ফাইনাল ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল অনেক আগেই। তবে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিলম্বিত হলো।

পেশায় পুলিশ কর্মকর্তা এ নারী রেফারি। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে আফ্রিকা নেশন্স কাপের ফাইনালে ভিডিও রেফারির দায়িত্বে ছিলেন বুশরা। মরক্কোর শীর্ষ লিগেও প্রথম নারী হিসাবে ম্যাচ পরিচালনার কীর্তি রয়েছে তার।

উত্তর আফ্রিকা ফুটবল ফেডারেশনের বিবৃতিতে শুক্রবার মরক্কোর সংবাদমাধ্যম প্রচার করার পরই আলোচনায় উঠে আসেন বুশরা।

বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, আরব বিশ্বে তিনিই প্রথম নারী, যিনি ছেলেদের কোনো জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ পরিচালনা করবেন।

২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক আঙিনায় রেফারিং করেন ৩৪ বছর বয়সি এ নারী। মরক্কোর শীর্ষ লিগ ম্যাচে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে ম্যাচ পরিচালনাও করেছেন বুশরা।

ফুটবল ইতিহাসে ছেলেদের ম্যাচে প্রথম নারী রেফারির নাম অ্যামি ফেয়ার্ন। ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের লিগ কাপে ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি।

তার আগে নব্বইয়ের দশকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ এবং লিগ কাপে প্রথম নারী হিসেবে সহকারী রেফারির ভূমিকায় দেখা গেছে ওয়েন্ডি টমসকে।