অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন অ্যান্টনি আলবানিজি

Published: 21 May 2022, 5:54 PM

পোস্ট ডেস্ক :


অস্ট্রেলিয়ায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে পরাজয় স্বীকার করে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যান্টনি আলবানিজিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রক্ষণশীল দলের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। লেবার পার্টির দপ্তরে গিয়ে গতকাল শনিবার তিনি মধ্য বামপন্থী নেতা আলবানিজিকে অভিনন্দন জানান।

নির্বাচনী প্রচারণায় স্কট মরিসন ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া চেষ্টা করেন। তবে জলবায়ু ইস্যুতে তার সরকারের নেতিবাচক অবস্থানের কারণে ভোটাররা বিক্ষুব্ধ ছিল।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া বেশ কিছু প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হয়েছে যার জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করা হচ্ছে।
খবরে বলা হচ্ছে, আলবানিজির নেতৃত্বাধীন জোট আইনসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে উঠে আসতে পারে। স্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতার খবর গতকাল বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

বিগত তিন বছরে বন্যা ও দাবানলের মতো বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মহামারির কারণে অস্ট্রেলীয়রা এবার জলবায়ু ইস্যুতে মনোযোগী প্রার্থীর দিকে ঝুঁকেছিল।

এবারের নির্বাচনে রক্ষণশীল ও মধ্য বামপন্থীদের লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে অস্ট্রেলীয় গ্রিনরাও। পরিবেশবাদী, দুর্নীতিবিরোধী ও লিঙ্গসমতাপন্থী উচ্চ যোগ্যতাসম্পন্ন স্বাধীন নারীদের মনোনয়ন দিয়ে নগরাঞ্চলে রক্ষণশীলদের এক সময়ের শক্ত আসনগুলোতে ভালো ফল করেছে তারা। গ্রিনদের নেতা অ্যাডাম ব্যান্ডট বলেন, ‘মানুষ বলছে, তারা জলবায়ু সংকটের বিষয়ে পদক্ষেপ দেখতে চায়। ’

প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণ বড় মাপে হ্রাসের বিষয়ে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেন। তিনি অর্থনীতির স্বার্থে কয়লা উত্তোলন ও বিদ্যুত্ উত্পাদনের জন্য পোড়ানোর নীতিকে সমর্থন করে আসছিলেন।

লেবার নেতা আলবানিজি নিজেকে অনুপ্রেরণাদায়ী হিসেবে বর্ণনা করে নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনগুলোয় মরিসনের ব্যর্থতার দিকে ইঙ্গিত করেন। তিনি বলেন, অস্ট্রেলীয়রা এমন কাউকে চায় যিনি ন্যায়পরায়ণ এবং ভুল করলে তা স্বীকার করেন।