সেনেগালে হাসপাতালে আগুন, ১১ নবজাতকের মৃত্যু

Published: 26 May 2022, 12:10 PM

পোস্ট ডেস্ক :


সেনেগালের তিভোউনে’তে একটি সরকারি হাসপাতালে আগুন লেগে কমপক্ষে ১১টি নবজাতক নিহত হয়েছে। এ খবর জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সাল। তিনি বুধবার রাতে টুইটারে লিখেছেন, একটি সরকারি হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে আগুনে ১১টি শিশু মারা যাওয়ার বেদনাদায়ক খবর পেলাম মাত্র। এসব শিশুর পিতামাতা, তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। সেনেগালের রাজনীতিক ডিওপ সি’র মতে, হাসপাতালের একটি শর্ট সার্কিট থেকে মামে আবদু আজিজ সি ডাবাখ হাসপাতালে এই অগ্নিকা-ের সৃষ্টি হয় এবং দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে।

শহরটির মেয়র ডেম্বা ডিওপ বলেছেন, আগুনের হাত থেকে রক্ষা করা গেছে তিনটি শিশুকে। স্থানীয় মিডিয়া থেকে বলা হয়েছে, এই হাসপাতালটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হয়েছে সম্প্রতি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি মিটিংয়ে জেনেভায় রয়েছেন সেনেগালের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আবদুলায়ে ডিউফ সার। তিনি অবিলম্বে দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন। রেডিও মারফত তিনি বলেছেন, এই ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ও চরম মাত্রায় বেদনাদায়ক। কি ঘটেছিল তা নির্ধারণের জন্য তদন্ত শুরু হয়েছে।

সেনেগালে সরকারি স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্রে এর আগেও বেশ কয়েকবার আগুন লেগেছে।

এর ফলে গ্রাম এলাকা এবং শহর এলাকার স্বাস্থ্যসেবার বৈষম্য ফুটে ওঠে। এপ্রিলে লিঙ্গুয়েরে’তে একটি হাসপাতালে আগুন লাগে। সেখানে মারা যায় চারটি নবজাতক। প্রসূতি ওয়ার্ডের একটি এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিটের ত্রুটিকে এর জন্য দায়ী করে শহরটির মেয়র।
সিজারিয়ান অপারেশনের জন্য অপেক্ষায় থাকা এক অন্তঃসত্ত্বা মারা যাওয়ার কারণে কয়েক সপ্তাহ আগে তিনজন ধাত্রীকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। ওই নারীর নাম আসতু সোখনা। তিনি লোউগা শহরের একটি হাসপাতালে উপস্থিত হন প্রসব বেদনা নিয়ে। তাকে সিজারিয়ান অপারেশন করানোর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেন হাসপাতালের স্টাফরা। তারা জানান, এখনও অপারেশনের সিডিউল আসেনি। এ অবস্থায় হাসপাতালে আসার ২০ ঘন্টার মধ্যে গত ১লা এপ্রিল মারা যান ওই নারী।

এর ফলে সেখানে জনমনে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। এর দুই সপ্তাহ পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বীকার করেন, এই মৃত্যুকে এড়ানো যেতো। যে রাতে সোখনা মারা যান তখন দায়িত্বে ছিলেন তিনজন ধাত্রী। ১১ই এপ্রিল লোউগার হাসপাতাল তাদেরকে অভিযুক্ত করে ৬ মাসের জেল দিয়েছে। তবে এই সাজা তাদেরকে ভোগ করতে হবে না।

সেনেগালে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরিচালক সেদি গাসামা বলেছেন, দেশটির পুরো প্রসূতি সেবার মান উন্নত করতে হবে এবং এ বিষয়ে পরিদর্শন করতে হবে। সোখনা মারা যাওয়ার জন্য দায়ীদের শনাক্ত করে শাস্তি নিশ্চিত করতে একটি নিরপেক্ষ কমিশন গঠনের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সরকার।