জেনিফারের ‘আশীর্বাদ’-এ অপু বিশ্বাস

Published: 17 August 2020, 2:23 PM

‘আশীর্বাদ’ নামে নতুন একটি সিনেমা নির্মাণ করতে চলেছেন প্রযোজক ও কাহিনীকার জেনিফার ফেরদৌস। সিনেমাটির জন্য তিনি ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে সরকারি অনুদান পেয়েছেন। এর পর থেকেই প্রধান নারী চরিত্র সুবর্ণার জন্য নায়িকা খুঁজছিলেন জেনিফার। অবশেষে পেয়েছেন সেই কাঙ্ক্ষিত অভিনেত্রীর খোঁজ। তিনি হলেন বহু হিট সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস।

সম্প্রতি ‘আশীর্বাদ’-এর সুবর্ণা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন অপু। গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিনেমার প্রযোজক ও কাহিনীকার জেনিফার ফেরদৌস নিজেই। এছাড়া নতুন সিনেমায় চুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অপু বিশ্বাসও। জানা যায়, রবিবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

সরকারি অনুদানের ‘আশীর্বাদ’ প্রযোজনার পাশাপাশি এর কাহিনি এবং চিত্রনাট্যও লিখেছেন জেনিফার ফেরদৌস। তিনি জানান, সিনেমাটি নির্মাণের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক মুস্তাফিজুর রহমান মানিকের হাতে। সিনেমার সংলাপ লিখেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু।

অপুকে নায়িকা নির্বাচন করা প্রসঙ্গে জেনিফার বলেন, ‘আমার সিনেমাটির গল্প মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক। মুক্তিযুদ্ধের আগের উত্তাল রাজনীতি এবং মুক্তিযুদ্ধের পটভূমি নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এখানে সুবর্ণা হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্রীর চরিত্র। সেই চরিত্রে অপুকেই আমার মানানসই মনে হয়েছে। তাই নায়িকা হিসেবে তাকেই চুক্তিবদ্ধ করলাম। বাকি অভিনয়শিল্পীদের নামও খুব শিগগির ঘোষণা করা হবে।’

সিনেমার শুটিং শুরুর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে প্রি-প্রোডাকশনের কাজ চলছে। ইচ্ছে আছে চলতি মাসের শেষের দিকে শুটিং শুরু করার। সেটা যদি সম্ভব না হয়, তাহলে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে সিনেমাটির শুটিং।’

নতুন সিনেমা প্রসঙ্গে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘জেনিফার আপু দারুণ একটি কাহিনি লিখেছেন। এর সুবর্ণা চরিত্রটি অসাধারণ লেগেছে। খুব ভালো লাগছে যে, লকডাউন কাটিয়ে আমরা আবার শুটিংয়ে ফিরছি।আশা করি, ভক্ত এবং দর্শকরা আগের মতোই আমার পাশে থাকবেন। এও বিশ্বাস করি, জেনিফার আপুর ‘আশীর্বাদ’ একটি অসাধারণ চলচ্চিত্র হতে চলেছে।’

অপু শেষ কাজ করেছেন দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ সিনেমায়। সেখানে প্রথমবারের মতো তিনি জুটি বেঁধেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরীর সঙ্গে। বহু আগে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার জেরে ঘোষিত লকডাউনের কারণে বন্ধ হয়ে যায় দেশের সব সিনেমা হল। তাতে আটকে যায় সিনেমার মুক্তিও।