নির্বাসন কাটিয়ে ফিরছেন কুসুম শিকদার

Published: 22 August 2020, 8:25 PM

দুই বছরের স্বেচ্ছা নির্বাসন কাটিয়ে আবার অভিনয়ে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। করোনার কারণে প্রায় চার মাস সব ধরনের শুটিংয়ের কাজ বন্ধ ছিল। তার মাঝেই বেশ কিছু নাটক ও সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছেন কুসুম। তবে নাটকে নয়, এই অভিনেত্রীর আগ্রহের জায়গা সিনেমা। তাই সিনেমার কাজ দিয়েই তিনি কামব্যাক করতে চান।

কুসুম শিকদারের কথায়, ‘আমি অভিনয় থেকে একেবারে বিদায় নেইনি। ব্যক্তিগত কিছু বিষয়ের জন্য গত দুই বছর কাজ থেকে দূরে আছি। সেই ব্যস্ততা এখন কিছুটা কমেছে। তাই আবার অভিনয়ে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছি। দুই বছর অভিনয় না করলেও এই অঙ্গনের সহকর্মী ও নির্মাতাদের সঙ্গে আমার নিয়মিত যোগাযোগ আছে। কাজ থেকে বিরতি নেয়ার পর আরও বেশি করে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি।’

‘লাল টিপ’ খ্যাত এই নায়িকা আরও বলেন, ‘নাটকে এখন তেমন আগ্রহ নেই আমার। সিনেমার কাজ নিয়ে ভাবছি। দুই বছর কোনো নাটক বা সিনেমায় কাজ না করলেও ফেসবুকের মাধ্যমে ভক্ত-সমর্থকদের উৎসাহ নিয়মিতই পাচ্ছি। এছাড়া আমার পরিবার থেকেও অভিনয়ে ফেরার বিষয়ে কোনো বিধিনিষেধ নেই। তাই খুব শিগগিরই হয়তো বড় পর্দায় হাজির হবো।’

২০০২ সালে লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন কুসুম শিকদার। এরপর কিছু নাটকে অভিনয় করেন। কুসুমের চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় ২০১০ সালে ‘গহিনে শব্দ’ সিনেমার মাধ্যমে। ২০১২ সালে করেন দ্বিতীয় সিনেমা ‘লালটিপ’। ২০১৫ সালে ‘শঙ্খচিল’ সিনেমাটির জন্য তিনি কেরিয়ারের একমাত্র ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’ লাভ করেন। তার ঝুলিতে দুটি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কারও রয়েছে।

অন্যদিকে, লেখালেখির অভ্যাসও রয়েছে কুসুম শিকদারের। ২০১৫ সালের বইমেলায় প্রকাশ হয়েছিল তার ‘নীল কাঠের কবি’ নামে একটি কবিতার বই। সেটির জন্য নতুন কবি হিসেবে পুরস্কারও পেয়েছিলেন। চলমান করোনা মহামারির মধ্যেও ‘শরতের জবা’ এবং ‘ছায়াকাল’ নামে দুটি গল্প লিখেছেন কুসুম। ওই দুটির সঙ্গে আরেকটি গল্প জুড়ে আগামী বছরের বইমেলায় একটি গল্পের বই প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছেন অভিনেত্রী।