জালিয়াতি করা সাবরিনার দুটি পরিচয়পত্রই ব্লক

Published: 28 August 2020, 3:19 PM

করোনা ভাইরাস পরীক্ষা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীর দুটি জাতীয় পরিচয়পত্রই ব্লক (অকার্যকর) করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। মিথ্যা তথ্য দিয়ে দু’বার ভোটার হওয়া ও দুটি জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করায় তার বিরুদ্ধে মামলা করতে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগকে নির্দেশও দিয়েছে ইসি। সংশ্লিষ্ট সূত্রের মাধ্যমে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ডা. সাবরিনা ২০১৬ সালের ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় দ্বিতীয়বার ভোটার হন। একটিতে সাবরিনা শারমিন হোসেন নাম দিয়ে ভোটার হন। এতে জন্ম তারিখ ১৯৭৮ সালের ২রা ডিসেম্বর দেখানো হয়। অন্যটিতে ১৯৮৩ সালের ২রা ডিসেম্বর। দুটি আইডিতে বয়সের তফাত অন্তত পাঁচ বছর।

একটিতে স্বামীর নাম হিসেবে ব্যবহার করেছেন আর এইচ হক। দ্বিতীয়টিতে স্বামীর নাম লেখা হয়েছে আরিফুল চৌধুরী। একটিতে বাবার নাম সৈয়দ মুশাররফ হোসেন ও মায়ের নাম কিশোয়ার জেসমীন। অপরটিতে মা-বাবার নাম পরিবর্তন করে সৈয়দ মুশাররফ হুসেন ও জেসমিন হুসেন দিয়েছেন। দুই এনআইডিতে দুই ঠিকানাও ব্যবহার করেছেন তিনি। একটিতে মোহাম্মদপুরের পিসিকালচার হাউজিং সোসাইটির ঠিকানা অন্যটিতে বাড্ডা এলাকার প্রগতি সরণির আনোয়ার ল্যান্ডমার্কের ঠিকানা ব্যবহার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ইসির এনআইডি অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাইদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, সাবরিনার দুটি জাতীয় পরিচয়পত্রই ব্লক করে দেয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে গুলশান থানা নির্বাচন কর্মকর্তাকে তার বিরুদ্ধে মামলা করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।