৫ বছরের বোনকে হত্যার হুমকি দিয়ে ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ!

Published: 10 October 2020, 5:41 PM

বিশেষ সংবাদদাতা, ঢাকা : মাদরাসা পড়ুয়া ছোট বোনের রাতের খাবার পৌঁছে বাড়ি ফেরার পথে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৯ বছরের এক শিশু। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পশ্চিম সনমান্দী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নির্যাতিত শিশুর বাবা বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার বিকেলে ধর্ষক সোহেলকে (২২) আসামি করে সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। ঘটনা জানাজানি হলে এলাকাবাসী ধর্ষক সোহেলকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভূক্তভোগী শিশুরা তিন বোন। তার সাত বছর বয়সী মেজো বোন স্থানীয় একটি মাদরাসা ও এতিমখানায় লেখাপড়া করে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নয় বছর বয়সী বড় বোন পাঁচ বছর বয়সী ছোট বোনকে নিয়ে মোজো বোনকে মাদরাসায় খাবার পৌঁছে দিতে যায়। খাবার দিয়ে ফেরার সময় একই গ্রামের আবুল হাসেমের ছেলে সোহেল মিয়া ওই দুই বোনের পথরোধ করে। ছোট শিশুকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যার ভয় দেখিয়ে জোর পূর্বক বাদীর বড় মেয়েকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে বাড়িতে এসে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তার ছোট বোন ধর্ষণের বিষয়টি পরিবারকে অবহিত করে। পরে শিশুটিকে মেয়েকে চিকিৎসা দিতে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সোনারগাঁ থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মামলা দায়ের পর আসামিকে গ্রেপ্তার করতে তারা অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে গণপিটুনী দিতে থাকলে তাকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সে পুলিশী হেফাজতে চিকিৎসাধীন আছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় গত শুক্রবার মামলা নেওয়া হয়েছে। পুলিশী অভিযানে ধর্ষক সোহেলকে আটক করা হয়েছে। গণপিটুনীতে সে অসুস্থ হওয়ায় তার প্রাথমিক চিকিৎসা চলছে। আগামীকাল তাকে নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতে পাঠানো হবে।