বঙ্গবন্ধুর রচিত বই নিয়ে জালিয়াতি, চার জনের দণ্ড

Published: 7 November 2020, 1:23 PM

বিশেষ সংবাদদাতা : জাতির পিতা বন্ধবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত কারাগারের রোজনামচা, আমার দেখা নয়াচীন ও অসমাপ্ত আত্মজীবনী বইয়ের কপিরাইট বিক্রির অভিযোগে চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা (জেল-জরিমানা) করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ শনিবার সকাল ১১টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ওয়ালিদ হোসেন।

সাজা ও গ্রেপ্তারের বিষয়ে ব্রিফিংয়ে ডিসি মিডিয়া বলেন, গত বৃহস্পতিবার বেলা ১২টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত নিউমার্কেট থানার ইসলামিয়া মার্কেটের বিভিন্ন বইয়ের দোকানে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে গোয়েন্দা রমনা বিভাগের একটি টিম এই অভিযান চালায়।

অভিযানে বাংলা একাডেমি প্রকাশিত জাতির পিতা বন্ধবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত কারাগারের রোজনামচা, আমার দেখা নয়াচীন ও অসমাপ্ত আত্মজীবনী বইয়ের পাইরেটেড মোট ২০টি কপি জব্দ করা হয়। এরপর এ বিষয়ে তদন্ত অব্যাহত রেখে তথ্য যাচাই বাছাই চলছিল। সত্যতা মিললে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন (২০০৯) মোতাবেক ভ্রাম্যমাণ আদালত পাইরেটেড বই বিক্রির অভিযোগে নীলক্ষেতের ইসলামীয়া মার্কেটের বই বাজার প্রকাশনীর স্বত্তাধিকারী সৈয়দ রবিউজ্জামানকে ১ বছর ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে এবং ওই দোকান থেকে ১৫টি কারাগারের রোজনামচা বইয়ের পাইরেটেড কপি জব্দ করা হয়।

এরপর ইসলামীয়া মার্কেটের চাঁদপুর বুক সেন্টারের সত্ত্বাধিকারী মো. হামিদকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং দোকান থেকে একটি কারাগারের রোজনামচা, একটি অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও একটি আমার দেখা নয়াচীন বইয়ের পাইরেটেড কপি জব্দ করা হয়। একইভাবে জিসান-১ বুক সেন্টার দোকান থেকে ১টি অসমাপ্ত আত্মজীবনী পাইরেটেড কপি জব্দ ও পাইরেটেড বিক্রি করার দায়ে মো. সাগরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও জিসান-২ বুক সেন্টার দোকান থেকে ১টি কারাগারের রোজনামচা বইয়ের পাইরেটেড কপি জব্দ ও পাইরেটেড বিক্রি করার দায়ে সোহেল রানাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কারাদণ্ড প্রাপ্তদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ব্রিফিংয়ে ডিসি ওয়ালিদ হোসেন আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত এই তিনটি বই জাতির জন্য একটি ঐতিহাসিক দলিল। এই বইগুলো আমরা অত্যন্ত শ্রদ্ধার সঙ্গে দেখি। জাতির ইতিহাসের জন্য বই তিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা বাংলা একাডেমি থেকে চিঠির মাধ্যমে জানতে পারি এই বইগুলো পাইরেটেড হচ্ছে। এরপর আমরা তথ্য নিয়ে জানতে পারি নিউমার্কেটের নীলক্ষেত এলাকার দুইটি বইয়ের মার্কেটে বইগুলো পাইরেটেড হওয়ার তথ্যের ভিত্তিতে ওই মার্কেটে অভিযান চালানো হয়।