নোবেল পুরুস্কারে মনোনয়ন পেলেন আমিরাতের যুবরাজ ও নেতানিয়াহু

Published: 26 November 2020, 7:53 AM

পোস্ট ডেস্ক : ইসরায়েলের সঙ্গে আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণে নেতৃত্ব দেওয়ায় শান্তিতে নোবেল পুরুস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ শেখ মুহাম্মাদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান এবং ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীল বেনয়ামিন নেতানিয়াহু।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর অফিস এক বিবৃতিতে জানায়, ‘শান্তিতে নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত ড্যাভিড ট্রিমবল আজ নোবেল ‍পুরুস্কারে জন্য প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু ও যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন জায়েদের নামের প্রস্তাবনা জমা দিয়েছেন।’

নোবেল কমিটি উভয়ের নাম পর্যালোচনা করে দেখবেন। আগামী বছর ২০২১ সালের অক্টোবর মাসে শান্তিতে নোবেল পুরুস্কারের ঘোষণা দেওয়া হবে।

১৯৯৮ সালে উত্তর নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ড্যাভিড ট্রিমবল দেশটিতে শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় সংকট সমাধান করলে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরুস্কার লাভ করেন।

গত ১৩ আগস্ট আরব আমিরাত ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্কের ঘোষণা দেয়। উভয়ের মধ্যে শান্তি চুক্তি সম্পন্ন হয়। এরপর ১৫ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটনের হোয়াইট হাউজে ইসরায়েলের সঙ্গে আমিরাত ও বাহরাইন শান্তি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে।

আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক করা তৃতীয় ও চতুর্থ আরব রাস্ট্র। এর আগে ১৯৭৯ সালে মিসর, ১৯৯৪ সালে জর্দান ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক করে।