হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচনে নৌকার বিজয়

Published: 28 February 2021, 1:21 PM

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন হবিগঞ্জ জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম।

রোববার পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে তিনি নৌকা প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১৩,৪৪৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিজান নারিকেল গাছ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১০,৭৯০ ভোট।
বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এনামুল হক সেলিম ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৩,২৪২ ভোট, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (পীর সাহেব চরমোনাই) মনোনীত হবিগঞ্জ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি সভাপতি মোঃ শামছুল হুদা হাতপাখা প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৫৭৯ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ বশিরুল আলম কাওছার মোবাইল ফোন ১৮১ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট’র আইনজীবি গাজী পারভেজ হাসান জগ প্রতিকে পেয়েছেন ১৬৫ ভোট।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাদেকুল ইসলাম জানান, রোববার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই একটানা ভোটগ্রহণ করা হয়।
নির্বাচনে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছেন ১শত ২০ সদস্যের ৬ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব)-এর ৪টি টিমসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও আনসার সদস্য। এছাড়াও দায়িত্বে পালনে ছিলেন একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও ১৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।
এদিকে, হবিগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন উপলক্ষে আচরণবিধি লঙ্ঘন ও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এবং সুষ্ট-শান্তিপূর্ণ পরিবেশ তৈরীর লক্ষ্যে পৌর এলাকায় মোটর বাইক চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল জেলা প্রশাসন। ২৬ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাত ১২ টার পর থেকে ১ মার্চ সোমবার ভোর ৬ টায় পর্যন্ত হবিগঞ্জ পৌর এলাকায় সব ধরনের মোটর বাইক চলাচল বন্ধ থাকে।
প্রসঙ্গত, ১৮৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত ৯ দশমিক ৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের প্রথম শ্রেণীর এ পৌরসভায় বসবাস করেন প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। নির্বাচন কমিশনের দেয়া সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী ‘পায়জামা আকৃতির শহর’ নামে খ্যাত এ পৌরসভার ভোটার সংখ্যা ৫০ হাজার ৯শ ৩ জন। এর মধ্যে নারী ভোটারের সংখ্যা ২৫ হাজার ৬শ ২০। এখানে সর্বশেষ সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর। ১৯৪৭ সাল থেকে সংরক্ষিত পৌরসভার দাপ্তরিক তথ্যানুযায়ী এবার নির্বাচিত হন ‘৩২তম নগর পিতা।’