ব্রিটেনে ফার্লো স্কিম ও সপ্তাহে অতিরিক্ত ২০ পাউন্ড বন্ধ

Published: 30 September 2021, 5:00 PM

পোস্ট ডেস্ক :


ব্রিটেনে করোনা মহামারি চলাকালীন চাকুরি রক্ষায় সরকার চালু করেছিলো ফার্লো স্কিম। পাশাপাশি নিম্ন আয়ের মানুষকে করোনাকালীন সপ্তাহে অতিরিক্ত ২০ পাউন্ড করে মাসে ৮০ পাউন্ড ইউনিভার্সেল ক্রেডিট দিয়ে আসছিলো। যা আজ(৩০ সেপ্টম্বর) শেষ হচ্ছে। আগামী কাল ১লা অক্টোবর থেকে আর কেউ এই সুবিদা ভোগ করতে পারবেন না। সরকারের চালু করা ফার্লো স্কিম দেশের হাজার হাজার মানুষের চাকুরি রক্ষা করেছিলো। শুধু চাকুরি নয়, করুণ এই পরিস্থিতিতে মানুষের জীবনে স্বস্তি নিয়ে আসে।
সরকার বলছে, ফার্লো স্কিম ১১.৬ মিলিয়ন মানুষের চাকুরি রক্ষা করেছে। বাজেট অফিসের হিসাবমতে ফার্লো স্কিমে প্রায় ৬৬ বিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় হয়েছে।

এদিকে কিছুদিন ধরে দেশটিতে বেড়েছে বেশিরভাগ জিনিসপত্রের দাম। আগেই দাম বৃদ্ধির আশঙ্কা করেছিলেন ফুড বিভাগের ব্যবসায়ীরা।

দিন যত গড়াচ্ছে খাদ্যপণ্যের দাম মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে।বিশেষ করে কাচাঁ তরকারীর দাম আকাশচুম্বি।বর্তমানে ২/৩ টাকা করে বেড়েছে প্রায় জিনিসের দাম। এর মধ্যে বেড়েছে গ্যাস, বিদ্যুৎ,কাউন্সিল ট্যাক্স,গাড়ি ভাড়া।

এমন পরিস্থিতিতে আগামীকাল(১লা অক্টোবর) থেকে অতিরিক্ত ২০ পাউন্ড বন্ধ হওয়ার ফলে হাজার হাজার নিম্ন আয়ের পরিবার আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হবেন।

ব্রিটেনভিত্তিক ‘জোফেস রনট্রি ফাউন্ডেশন’ নামে একটি দাতব্য সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছে।

জোফেস রনটি ফাউন্ডেশন সতর্ক করে বলেছে, ক্রমবর্ধমান শক্তি এবং ভোগ্যপণ্যের দামগুলোর সমন্বয়, সুবিধা হ্রাসের সাথে দরিদ্র পরিবারের খরচ অতিরিক্ত ৭১০ পাউন্ড যোগ করবে।

ইউনিভার্সাল ক্রেডিট পেমেন্টের উন্নতি বন্ধ করার পরিকল্পনা নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই প্রতিবেদনটি এসেছে।তবে সরকার বলেছে, ভোক্তাদের সুরক্ষার জন্য তারা স্কিম নিয়ে কাজ করছে।

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share