অবিশ্বাস্য তাসকিনে মুগ্ধ রাসেল ডমিঙ্গো

Published: 2 October 2020, 7:59 PM

পোস্ট ডেস্ক : একের পর এক ইনজুরিতে পেস তারকা তাসকিনের ক্যারিয়ারটাই হুমকির মুখে পড়ে গিয়েছিল। সেই অবস্থা থেকে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেকে আবার ফিরে পেয়েছেন ২৫ বছর বয়সী এই তরুণ। লকডাউনে মোহাম্মদপুরের এক নিরিবিলি জায়গায় নিয়মিত ফিটনেসের কাজ করে গেছেন। তার ফলও পেয়েছেন হাতেনাতে। আজ থেকে শুরু হওয়া প্রস্তুতি ম্যাচে তিনি দারুণ বল করেছেন। বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো তার শিষ্যদের নিয়ে খুশি হলেও তাসকিনকে নিয়ে একটু বেশি খুশি।

আজ শুক্রবার বিকালে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো বলেন, ‘খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত অনুশীলন আয়োজনে সাব্বির খান (সিনিয়র ব্যবস্থাপক) অসাধারণ কাজ করেছে। খেলোয়াড়েরা গত তিন-চার মাসে ভীষণ ব্যস্ত ছিল। আমরা এখানে এসেছি মাসখানেক হলো। তারা যেভাবে কাজ করেছে বেশ গর্ব হচ্ছে। তাদের শারীরিক অবস্থা অনেক ভালো। নেটে অনেককে দেখে মনে হলো খুব ভালো অবস্থায় আছে। বোলাররা নিজেদের ফিট রেখেছে। তাসকিনকে তো অবিশ্বাস্য লাগছে! এটা দুর্দান্ত ব্যাপার!’

চোট ও ফর্মের কারণে গত দুই বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে আছেন তাসকিন। এবার নিজেকে আবারও তৈরি করেছেন তিনি। তাই বারবার কোচের মুখে শোনা গেল তার প্রশংসা, ‘আমরা খুব ভালো একটা ফাস্ট বোলিং আক্রমণ তৈরি করছি। আমাদের আছে ইবাদত, রাহি, তাসকিন, মুস্তাফিজ ও আল আমিন। ৬-৭ জনের একটা দারুণ গ্রুপ তৈরি করার চেষ্টা করছি যারা সব সংস্করণ খেলতে পারবে। দেশে ভালো করছে, আগামী কয়েক বছরে বিদেশেও ভালো করবে। তাসকিন সত্যি অনেক পরিশ্রম করছে। এটা আমাকে মুগ্ধ করেছে। ভীষণ ফিট হয়ে ফিরেছে সে।’

তাসকিনের প্রশংসার পর বাকি পেসারদের নিয়ে ডমিঙ্গো বলেছেন, ‘নতুন বলে মুস্তাফিজ বেশ ছন্দে ফিরছে। তার মধ্যে বেশ ভালো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে। আবু জায়েদ রাহিকে দেখা হয়নি (করোনা আক্রান্ত ছিলেন)। ইবাদতকে কদিন বিচ্ছিন্ন থাকতে হয়েছে। খালেদ মুগ্ধ করেছে। আমার মনে হয় হাসান মাহমুদেরও ভালো ভবিষ্যৎ আছে।যদি আমাদের ফাস্ট বোলিং আক্রমণ দেশের বাইরে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের চাপে রাখতে পারে, তাহলে আমরা আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ দল হয়ে উঠতে পারব। এই মুহূর্তে আমাদের বোলাররা সে পথেই এগিয়ে যাচ্ছে।’