সিলেটের বর্বরোচিত ঘটনা গোটা সিলেটবাসীর জন্য লজ্জাজনক -পরিবেশমন্ত্রী

Published: 8 October 2020, 3:16 PM

বড়লেখা প্রতিনিধি: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়কমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, সিলেট এমসি কলেজের হোস্টেলে সংঘবদ্ধ বর্বরোচিত ধর্ষণের ঘটনা গোটা সিলেট বাসীর জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক। তাদের সরকার এসব ঘটনায় বিচারের সব রকম ব্যবস্থা করছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জঘন্য এ ঘটনায় জড়িত সকলকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করেছে। বিভিন্ন মহলে দাবী উঠেছে আইন সংশোধন করে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড করার। এ দাবীর প্রতি সমর্থন জানিয়ে তিনি আইনের বিধান অনুযায়ী অপরাধীদের সকলেরই সর্বোচ্চ শাস্তি প্রত্যাশা করছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ৪টি প্রকল্পে বাস্তবায়িত ২

৬২ গৃহহীন পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকরা দেশব্যাপী আলোচিত নারী নিপীড়নের ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে পরিবেশমন্ত্রী শাহাব উদ্দিন এমপি এসব কথা বলেন।

এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, ইউএনও মো. শামীম আল ইমরান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সুন্দর, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা উবায়েদ উল্লাহ খান, সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।১৮৭৯ জন দুস্থ চা

শ্রমিককে অনুদানের চেক বিতরণ :

বড়লেখা উপজেলা প্রশাসন ও সমাজসেবা কার্যালয়ের আয়োজনে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন চা বাগানের ১ হাজার ৮৭৯ জন দুস্থ চা শ্রমিককে ৫ হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়কমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য সবার জীবনমান উন্নয়ন করা। দেশকে উন্নত করা। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমানের উন্নয়ন করাই সরকারের মুল লক্ষ্য। তাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েই কাজ করছে সরকার।’ সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম আল ইমরানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিনের সঞ্চানায় অনুষ্ঠিত অনুদানের চেক বিতরণের সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, সহকারী কমিশনার (ভুমি) নুসরাত লায়লা নীরা, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাহেনা বেগম হাসনা, থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার, পৌরসভার মেয়র আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ একেএম হেলাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল লতিফ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. উবায়েদ উল্লাহ খান, ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক, আহমদ জুবায়ের লিটন, সিরাজ উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন, বিদ্যুৎ কান্তি দাস প্রমুখ।