বিয়ানীবাজারে পুত্রের আত্মহত্যার ব্যর্থ প্রচেষ্টা, বাবা দিলেন পুলিশে

Published: 5 November 2020, 7:58 PM

সিলেট অফিস : বিয়ানীবাজারে এক যুবকের আত্মহত্যা প্রচেষ্টা চালিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের ঠেকইকোনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবকের নাম সুমন পাল (৩০)। সে পাথারীপাড়া (পিরেরচক) গ্রামের সুবোধ পালের একমাত্র ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিয়ানীবাজার থেকে সারপার যাওয়ার পথে ঠেকইকোনা গ্রামের কবরস্থানের মাঝে একটি গাছে এক ব্যক্তিকে ঝুলানো অবস্থায় দেখতে পান প্রত্যক্ষদর্শীরা। গাড়ি থেকে নেমে দ্রুত গিয়ে তারা গাছ থেকে যুবককে নামিয়ে গলায় থাকা ফাঁস দেয়ার রশি খুলেন। পরে তারা থানা পুলিশকে অবগত করেন। খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানার এসআই শাহ আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবক সুমন পালকে থানায় নিয়ে যান।

আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবকের পিতা সুবোধ পাল বলেন, আমার ছেলে আমার কাছ থেকে টাকা নেওয়ার জন্য ঝামেলা করে আসতেছে। ঘরের সবাইকে মারধর করে। আসবাব পত্র ভেঙে ফেলে। বৃহস্পতিবার বিকালে হঠাৎ তার আত্মহত্যা চেষ্টা চালিয়েছে বলে খবর পাই। ভবিষ্যতে আরো বড় কোনো ঘটনার আশঙ্কা করায় তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হয়েছি।

মুড়িয়া ইউপি সদস্য আলী আহমদ বলেন, সুমন সুবিধার ছেলে নয়। নিয়মিত পরিবারের সদস্যদের নির্যাতন করে খবর পাই। এর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার এসআই শাহ আলম বলেন, খবর খেয়ে আমরা এসে ঘটনার সত্যতা পাই। সুমন পালের পরিবার ও স্থানীয়দের সাথে আলোচনা করে তাকে থানায় নিয়ে আসি।

আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবক সুমন পাল বলেন, আমি কয়েকদিন থেকে পরিবারের কাছে ২ লাখ টাকা চেয়ে আসছি। কিন্তু পরিবার টাকা দিতে না দেওয়ায় বাধ্য হয়ে সুইসাইড করার সিদ্ধান্ত নেই।