ওমান টি-টোয়েন্টি বিশ্ব কাপের প্রথম ম্যাচ হোস্ট করবে

Published: 14 October 2021, 5:37 PM

পোস্ট ডেস্ক :

১৮৭০ সালে খিমজি রামদাস কোম্পানি যখন ওমানে তাদের যাত্রা শুরু করেছিল, তখন কি একবারও ভেবেছিলো যে, এই দেশের ইতিহাসে তাদের নাম খোদাই করা থাকবে? একশো একান্ন বছর পরে খিমজি পরিবারের এক সদস্য পঙ্কজ ওমানে টি – টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সংগঠনের প্রধান মস্তিস্ক। পঙ্কজ-এর বাবা কানাসকি একদা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মানচিত্রে ওমানকে স্টাপিত করতে অনেক চেষ্টা করেছিলেন। বাবার আরব্ধ কাজ করলেন ওমান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন-এর চেয়ারম্যান পঙ্কজ। পাশে পেয়েছেন উনিশশো ছিয়ানব্বই সালে বিশ্বকাপ জয়ী শ্রীলঙ্কা দলের দলীপ মেন্ডিজকে।

তিনি ওমান ক্রিকেট সংস্থার প্রধান পরামর্শদাতা। পঙ্কজ যখন দায়িত্ব নেন তখন ওমানে একটাও সবুজ ঘাসের মাঠ নেই। আছে কংক্রিট -এর উইকেট। আছে ধূসর, এবড়োথেবড়ো আউটফিল্ড।

পঙ্কজ দেশের ক্রীড়ামন্ত্রীর সাহায্য নিয়ে রাজধানী মাস্কাট থেকে কুড়ি মিনিটের দূরত্বে আল আমিরাতে সত্তর হাজার স্কয়ার মিটার জায়গায় স্টেডিয়াম তৈরির কাজ শুরু করেন। দশ হাজার রিয়াল অর্থাৎ নামমাত্র ছাব্বিশ হাজার ডলারে এই জায়গা পাওয়ার মাধ্যমে সরকার বুঝিয়ে দেয়, ওমান ক্রিকেট সংস্থার পাশে তারা আছে। অসম্ভবকে সম্ভব করার কাজ শুরু হয়ে যায়। যার পরিণতিতে রবিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্ব কাপ এর কোয়ালিফাযারের ম্যাচ শুরু। পঙ্কজ খিমজি বলছেন, শুধু ওমানে ম্যাচ সংগঠন নয়, ওমানকে মূলপর্বতে তোলাটাও আমার সাধনা। বানকায় খিমজিদের ফার্মহাউস-এ ওমান ক্রিকেট দলটি অনুশীলন করেছে। দলীপ মেনডিজ দলটির সাফল্য সম্পর্কে নিশ্চিত। বলছেন, ওমান-এর মানুষেরা অন্তর থেকে ভালো,উচ্চশা আছে, পরিশ্রমী । এদের আটকানো কঠিন। ওমানবাসীও তাকিয়ে আছে টি – টোয়েন্টি বিশ্বকাপ-এর দিকে। নিজেদের পারিবারিক ব্যবসায় সম্পৃক্ত হওয়ার আগে পঙ্কজ খিমজি কিছুদিন বহুজাতিক প্রক্টর গম্বেল কোম্পানির সেলস প্রতিনিধির কাজ করছেন ইংল্যান্ডে। তিনি জানেন, স্বপ্ন কীভাবে বিক্রি করতে হয়। সেই স্বপ্নই তিনি বিক্রি করছেন ওমানের ক্রিকেটে।

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share