তাহিরপুরে গ্রাম পুলিশ হত্যাকান্ডে গ্রেফতার ৩

Published: 8 May 2021, 12:44 PM

তাহিরপুর সংবাদদাতা : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে গ্রাম পুলিশ আব্দুর রউফ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মূল ঘাতক সহ দুইজনকে আটক করেছে সুনামগঞ্জ র‍্যাব সিপিসি এর সদস্যরা।

শুক্রবার (৭ মে) বিকালে র‍্যাব-৯ গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে উপজেলার বড়দল উত্তর ইউনিয়নের হলহলিয়া চরগাঁও এবং বোরখাড়া গ্রাম থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের হলহলিয়া চরগাঁও গ্রামের মলাই মিয়ার ছেলে মূল ঘাতক আব্দুল হেকিম (৩০) তার সহযোগী বোরখাড়া গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে এনামুল হক শাবনুর (২৫)।

র‍্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে আটককৃতরা এবং তাদের আরেক সহযোগী হলহলিয়া চরগাঁও গ্রামের আকবর আলীর ছেলে সোহেল মিয়া (২৮) পলাতক রয়েছে। র‌্যাব তাকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

শনিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব-৯ সিপিসি-৩ জানায়, গত বৃহস্পতিবার দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে নিহত গ্রাম পুলিশ সদস্য আব্দুর রউফের মরদেহ উদ্ধার করে তাহিরপুর থানা পুলিশ। পরে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের খুঁজে বের করতে পুলিশের পাশাপাশি র‍্যাবের একটি আভিযানিক ও গোয়েন্দা দল ছায়া তদন্ত শুরু করে। শুক্রবার বিকালে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত মূল ঘাতক সহ দুইজনকে আটক করে এবং তাদের আরেক সহযোগী পলাতক রয়েছে বলে জানায়।

র‍্যাব-৯ এর উপ-পরিচালক লে. কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ জানান, এ হত্যাকাণ্ডে হলহলিয়া চরগাঁও গ্রাম থেকে দুইজনকে আটক করা হয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং তাদের আরেক সহযোগী পলাতক রয়েছে। আটককৃত দুইজনকে তাহিরপুর থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম পক্রিয়াধীন রয়েছে।

এইদিকে শুক্রবারে তাহিরপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকায় দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের মাটিকাটা গ্রামের সামছু মিয়ার ছেলে ইয়াসিন মিয়া নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

তাহিরপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, গ্রাম পুলিশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় তাহিরপুর থানা পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •