বড়লেখায় প্রবাসীর বাড়ির সীমানা প্রাচীর নিশ্চিহ্ন, আগর গাছ কর্তন

Published: 7 March 2021, 1:33 PM

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপির গাংকুল গ্রামে পূর্ব-বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষ রাতের আধারে দুবাই প্রবাসী নুরুল ইসলামের বসতবাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে।

১৫-২০ জনের সঙ্গবদ্ধ প্রতিপক্ষ সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে মাটির সাথে মিশিয়ে দিয়েছে। এছাড়াও ১৫টি আগর গাছ কর্তন ও গ্যারেজে থাকা অটোরিকশা (সিএনজি) ভাংচুর করে ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে। শনিবার বিকেলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এদিকে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় প্রবাসীর ছোটভাই নজরুল ইসলাম হামলাকারী ৭ জনকে আসামী করে রোববার বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সি-আর মামলা করেছেন।

জানা গেছে, গাংকুল গ্রামের নুরুল ইসলাম ও তার ছোটভাই হোসাইন আহমেদ দীর্ঘদিন ধরে দুবাই থাকেন। প্যারালাইসিস রোগী বাবা আমির উদ্দিন, মা নুরুন নাহার ও ছোটভাই নজরুল ইসলাম বাড়িতে থাকেন। প্রতিবেশি ওসমান গণি, আখলাখ মিয়া, মুহিবুর রহমান, সুন্দর আলী প্রমুখ প্রবাসী সহোদরের বসত বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণে বাধা প্রদান করেন। একপর্যায়ে গ্রাম্য সালিশ মীমাংসা প্রায় ১ বছর পূর্বে প্রবাসী বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেন। গত বৃহস্পতিবার রাতের আধারে প্রতিপক্ষের লোকজন বহিরাগত ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে সঙ্গবদ্ধভাবে প্রায় ১৫০ ফুট দীর্ঘ সীমানা প্রাচীর গুড়িয়ে দেয়। ১৫ টি আগর গাছ কেটে নিয়ে যায়। বাড়ির গ্যারেজে থাকা অটোরিকশা (সিএনজি) ভাংচুর করে। খবর পেয়ে রাতেই থানার টহল পুলিশ গিয়ে কয়েকটি লুন্ঠিত আগর গাছ উদ্ধার করেছে। থানার এএসআই সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত ওসমান গণি, আখলাছ মিয়া প্রমুখের বাড়িতে গিয়েও তাদেরকে পাওয়া যায়নি। মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তাদের বক্তব্য মিলেনি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। জায়গা-জমি নিয়ে বিরোধ থাকলে ১ বছর আগে এখানে দেয়াল দিতে দিলেন কেন। তখন বাধা দিলেন না কেন। এভাবে রাতের আধারে কোন নাগরিকের সীমানা প্রাচীর ভাঙ্গা চরম অন্যায়। তিনি ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।

দুবাই প্রবাসী নুরুল ইসলামের ভাই নজরুল ইসলাম জানান, রাতের আধারে ওসমান গণি, আখলাছ মিয়া ও মুহিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে, গাছ কেটে ও সিএনজি ভাংচুর চালিয়ে ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করেছে। সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তিনি ওসমনা গণিকে প্রধান আসামী করে ৭ জনের বিরুদ্ধে রোববার বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছেন।

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share